১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, দুপুর ১২:১৮
বিজ্ঞাপনের জন্য ই-মেইল করুনঃ ads@primenarayanganj.com

সড়ক-ফুটপাতে নির্মাণ সামগ্রী, ভোগান্তিতে নগরবাসী

প্রাইমনারায়ণগঞ্জ.কম

নগরীর সবচেয়ে ব্যস্ততম রাস্তা বঙ্গবন্ধু সড়ক। এমনিতেই প্রতিদিন যানজট লেগে থাকে ব্যস্ততম এ সড়কে। তার উপর আবার ২নং রেল গেইট এলাকায় চুনকা পাঠাগারের পাশেই সড়কটি দখল করে পাথর, ইট, বালুসহ নির্মাণ সামগ্রী রেখে বহুতল ভবন মার্কেট নির্মাণ কাজ করছে ব্যবসায়ী আলমাছ আলী। এর ফলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে ও চরম দুর্ভোগে পড়ছেন পড়েছেন নগরবাসী। যানজট-দুর্ঘটনাসহ নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাদের। কোনো নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই এসব নির্মাণ সামগ্রী রাখা হচ্ছে সড়কের উপর।

নগরবাসী বলছে, আইন অনুযায়ী সড়কে ইট, বালু, সিমেন্ট ও পাথরসহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী রাখা বেআইনি। কিন্তু তারপরও এ বিধান কেউ মানছেন না। আবার অনেক ইট-বালু-রড ব্যবসায়ী রাস্তার ওপর তাদের মালপত্র রেখে ব্যবসা পরিচালনা করছেন। দীর্ঘদিন ধরে এমন অবস্থা চলে আসলেও সিটি কর্পোরেশন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো জোর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না বলেও স্থানীয়দের পক্ষ থেকে অভিযোগ ওঠেছে।

স্থানীয়রা বলছেন, নগরীর বিভিন্ন এলাকায় প্রায়ই সড়ক ও ফুটপাত দখল করে দীর্ঘদিন যাবৎ নির্মাণ সামগ্রী রেখে ভবন নির্মাণ করা হয়। এতে করে রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী যানবাহন ও পথচারীরা চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েন। শুধু তাই নয়, মাঝে মধ্যে এ কারণে ফাঁকা রাস্তায় প্রায়াই যানযট লেগেই থাকে। এরপরও নির্মাণাধীন ভবনের মালিকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায় না। আগে কম থাকলেও বর্তমান সময়ে নগরীর বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী বেশি রাখা হচ্ছে। ব্যবস্থা না নেয়ায় এমন ঘটনা ঘটছে বলে অনেকেই অভিযোগ করেছেন।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নগরীর বঙ্গবন্ধু সড়কের ২নং রেল গেইট এলাকায় পুরাতন ডায়মন্ড হল ভবনটি ভেঙ্গে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন ব্যবসায়ী আলমাছ আলী। নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত ইট, ভরাট বালু, সিলেকশন বালু, কংক্রিট, বোল্ডার ভাঙ্গা পাথর, বড় পাথর ইত্যাদি সড়কের উপর মজুদ করে রেখেছে। ফলে ওই সড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। ওইসব নির্মাণ সামগ্রীর কারণে পথচারীরা ফুটপাত দিয়েও হাটতে না পারায় সড়ক দিয়েই হাটা-চলা করতে হচ্ছে তাদের।
এলাকাবাসী জানান, সড়কের উপর রাখা এসব নির্মাণ সামগ্রী আলমাস আলীর নব-নির্মিতব্য বহুতল ভবনের জন্য আনা হয়েছে।

পথচারী শাকিল মিয়া বলেন, অনেকদিন ধরেই এ সড়কের উপর পাথর, বালু, ইট ও কংক্রিট রেখে ভবন নির্মাণ কাজ চলছে। এতে সাধারণ পথচারীদের চলাচলে দুর্ভোগ বেড়েছে। সড়কের উপর নির্মাণ সামগ্রী রেখে ভবন নির্মাণ করার এমন নজির পৃথিবীর কোথাও নেই।

এ বিষয়ে নগরীর এক মার্কেটের দোকানদার বলেন, সবসময় এ পথ দিয়েই যাতায়াত করি। এমনিতেই এ সড়কটি নগরীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোর একটি, যানজটও লেগে থাকে প্রায় সবসময়। তার উপর আবার সড়ক দখল করে এসব বালি, ইট ও কংক্রিট রাখার কারণে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

রিকশাচালক রহিম মিয়া বলেন, কি বলবো, আমরা গরিব মানুষ। এ রাস্তার পাশ এমনিতেই কম। তার উপর মালামাল রেখে রাস্তা আরো ছোট হয়ে যাচ্ছে। ফলে প্রায়ই রিক্সা, সিএনজি, প্রাইভেট কারসহ বিভিন্ন যানবাহনের সাথে সংঘর্ষের ফলে বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা ঘটছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিটি কর্পোরেশনে পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা আবুল হোসেন বলেন, সড়ক বা ফুটপাত দখলের কোনো অনুমতি সাধারণত দেয়া হয় না। তারপরও আমরা দেখবো কোনো অনুমতি নেয়া হয়েছে কিনা, যদি অনুমতি না নেয়া হয়ে থাকে তাহলে আমরা ব্যবস্থা নিবো। তাছাড়া তিনি নগর পরিকল্পনাবিদের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নগর পরিকল্পনাবীদ মঈনুল ইসলাম জানান, ফুটপাত যে বা যারাই দখল করুক তাদের বিরুদ্ধে সবসময়ই ব্যবস্থা নেয়া হয়। সিটি কর্পোরেশন থেকে বিভিন্ন সময় অভিযান চালিয়ে অনেককে জরিমানা করা হয়। আমরা আগেও অনেককে জরিমানা করেছি, মালপত্র জব্দ করেছি। এ বিষয়ে আমি আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবো। যদি কোনো অনিয়ম করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে ফোনে জানতে চাইলে ব্যবসায়ী আলমাস আলী বলেন, মনে হয় আমাদের অনুমতি আছে। তারপরও কাজ করতে গেলে অনেক সময় ভুল-ত্রুটি হতে পারে।

আজকের দিন-তারিখ

  • মঙ্গলবার (দুপুর ১২:১৮)
  • ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৮ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
  • ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)

বাছাইকৃত সংবাদ

No posts found.