১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, সকাল ১১:৩৭
বিজ্ঞাপনের জন্য ই-মেইল করুনঃ ads@primenarayanganj.com

৪ বছর ধরে সড়ক দখল করে চলছে নির্মাণ কাজ

প্রাইমনারায়ণগঞ্জ.কম

মোঃ সাইফুল ইসলাম সায়েম:

নগরীর ১৫ নং ওয়ার্ডের ২নং রেল গেইট এলাকায় প্রায় চার বছর ধরে সড়ক দখল করে চলছে ফজর আলী ট্রেড সেন্টার নামে একটি বহুতল ভবনের সংস্কার ও নির্মাণ কাজ! সড়কের উপর টিনের বাউন্ডারী দিয়ে চলছে এ সংস্কার কাজ। এতে ভোগান্তিতে পড়ছে পথচারী, আশেপাশের ব্যবসায়ী ও ক্ষুদ্র দোকানদাররা। নাসিক কর্তৃপক্ষ বলছে, দেখে তারপর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জানা যায়, প্রায় ৪ বছর পূর্বে শহরের ২নং রেল গেইট এলাকার সৈয়দ আলী চেম্বার নামক জরাজীর্ণ একটি ভবন ক্রয় করেন ব্যবসায়ী ফজর আলী। এর পর থেকেই তিনি ভবনটি সংস্কারের নামে ভবনের চারপাশের সড়কের প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ ফুট জায়গা টিন দিয়ে বাউন্ডারি দিয়ে দখলের চেষ্টা করছেন। তাছাড়া ভবনটির সংস্কারের ক্ষেত্রেও তেমন কোন নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেন নি বলেও জানা যায়। ইতিপূর্বেই সংস্কার কাজের সময় কয়েকজন পথচারী ও ব্যবসায়ীর মাথায় ইট-পাথর পড়ে মাথা ফেটে যায় বলেও জানা যায়। তবে ভবনের মালিক প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ কোন কথা বলতে সাহস পায়না বলেও জানান স্থানীয়রা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কোন অনুমতি ছাড়াই ২নং রেল গেইট এলাকার বিপনী মার্কেট গ্রীণ সুপার মার্কেটের একপাশ থেকে শুরু অন্যপাশ পর্যন্ত ৩-৪ ফুট চওড়া হিসাবে প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ ফুট সড়ক দখলে নিয়ে এবং টিন দিয়ে আটকিয়ে বাউন্ডারি দিয়ে সংস্কার ও নির্মাণ কাজ চলছে ফজর আলী ট্রেড সেন্টার ভবনের। দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর যাবৎ ভবনটি নির্মাণের নামে পুরোনো জরাজীর্ণ সৈয়দ আলী চেম্বার ভবনের উপর ফজর আলী ট্রেড সেন্টার নামীয় এই ভবনের সংস্কারের কাজ করছে প্রভাবশালী ব্যবসায়ী ফজর আলী। দীর্ঘ ৩ বছর যাবৎ সড়ক দখল করে মানুষের যাতায়াতের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে নির্মাণ কাজ করায় পথচারীসহ স্থানীয় দোকানদার ও ব্যবসায়ীরা চরম দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছে। নির্মাণের নামে সড়ক দখলের এই উৎসব যেন কোনভাবেই থামছে না। প্রায় চার বছর ধরে টিনের এ বাউন্ডারি দিয়ে রাখার কারণে জনসাধারনের চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি, ফজর আলী ট্রেড সেন্টার সংলগ্ন ব্যবসায়ীদের ব্যবসা-বাণিজ্য হুমকির মুখে পড়াসহ আর্থিক লোকসান এবং এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াতকারী হাজার হাজার মানুষকে চরম দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানায়, সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চার বছর ধরে। টিন দিয়ে বাউন্ডারি দেয়ার কারণে জনগনের চলাচলের রাস্তাটি একরকম বন্ধই হয়ে গেছে। রাস্তা বন্ধ হওয়ার কারণে ক্রেতা সমাগম নেই বললেই চলে। ফলে চার বছর ধরে ব্যবসায় লোকসান গুনতে হচ্ছে আমাদের। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আর ফজর আলী কোটিপতি, তাই তার বিরুদ্ধে কথা বলার মতো কোনো সাহস আমাদের নেই।

পথচারী রাসেল মিয়া বলেন, এ রাস্তাটি দিয়ে হাটতে বেশ কষ্ট হয়। এমনিতেই হকাররা দর্জি মেশিনসহ বিভিন্ন দোকান দিয়ে রাস্তাটি দখল করে রাখে, তার উপর আবার টিনের বাউন্ডারি দেয়ায় এখনা দিয়ে হাটাই যায় না। হাটতে হলে একজনের সাথে একজনের গাঁয়ে ধাক্কা লাগে এমন পরিস্থিতি। তারপরও দেখার যেন কেউ নেই, অথবা দেখেও না দেখার ভান করা হচ্ছে ক্ষোভের সুরে বলেন তিনি। তার মতে, এ যেন অনুমতি বিহীনভাবে সরকারী রাস্তা দখল করে ভবন নির্মাণের মহোৎসব চলছে।

জানা গেছে, সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণ কাজ বেআইনী হলেও এ বিষয়ে কোন তোয়াক্কা করছেনা ভবন নির্মাণকারী এই ব্যবসায়ী।
এদিকে, স্থানীয় এলাকাবাসীদের দাবি, শহরের প্রাণ কেন্দ্র হিসাবে পরিচিত ২নং রেল গেইট এলাকায় এমনভাবে সড়ক দখল করে ভবন নির্মাণ বা সংস্কারের কারণে জনগনের যে দুর্ভোগ হচ্ছে, অবিলম্বে তা থেকে যেন শহরবাসী এবং পথচারী ও ব্যবসায়ীদের মুক্তি দেয়া হয়। এবিষয়ে সিটি কর্পোরেশন সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহন করবে বলেও আশা ব্যক্ত করেন তারা।

এবিষয়ে নাসিকের নগর পরিকল্পনাবিদ মাইনুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আগামীকাল সকালে একবার ফোন করে আমাকে লোকেশনটা বলবেন। আমি খোঁজ নিয়ে তারপর জানাবো।

সংশ্লিষ্ট ১৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাসকে ফোন করা হলে তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
ভবনটির মালিক, ব্যবসায়ী ফজর আলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি কল রিসিভ করেন নি।

আজকের দিন-তারিখ

  • মঙ্গলবার (সকাল ১১:৩৭)
  • ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৮ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
  • ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)

বাছাইকৃত সংবাদ

No posts found.