১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, সকাল ১০:০০
বিজ্ঞাপনের জন্য ই-মেইল করুনঃ ads@primenarayanganj.com

সদর উপজেলা গেইটের সড়কে গ্যাসের বুদবুদ

প্রাইমনারায়ণগঞ্জ.কম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ব্যস্ততম এলাকা নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা গেইটের সামনের সড়কে লিকেজ হয়ে অনেক দিন ধরেই বুদবুদ করে বের হচ্ছে গ্যাস। এতে আতঙ্কিত পুরো এলাকার মানুষ। স্থানীয়দের অভিযোগ, বারবার তিতাসকে জানিয়েও গত এক বছরেও কোনো সমাধান মেলেনি। তল্লায় বায়তুস সালাত মসজিদে বিস্ফোরণের মতো দুর্ঘটনার শঙ্কায় দিন কাটছে এলাকার বাসিন্দাদের।

এদিকে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তিতাস গ্যাস কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদাসীনতার জন্যই ঘটছে দুর্ঘটনা। তিতাস কর্তৃপক্ষ কোনোভাবেই এর দায় এড়াতে পারে না বলেও জানান তারা। তবে তিতাস কর্তৃপক্ষ বলছে, কেউ কোনো অভিযোগ করে নি, তারপরও আমি এখনি ব্যবস্থা নিচ্ছি।

জানা যায়, তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড নারায়ণগঞ্জে গ্যাস সরবরাহ করে। জেলায় রয়েছে হাজার হাজার আবাসিক, শত শত বাণিজ্যিক গ্রাহক ও বেশ কয়েকটি সিএনজি ফিলিং স্টেশন। সড়কের পাশ দিয়ে অলিগলিতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে গ্যাস সংযোগ। সড়কে খোঁড়াখুঁড়ির কারণে ও দীর্ঘদিনের পুরোনো লাইন হওয়ায় জীর্ণ এসব সংযোগ লাইনগুলো ক্রমশ দুর্বল হয়ে উঠেছে। সরবরাহ লাইনের বিভিন্ন স্থানে ছিদ্র থেকে নিয়মিত গ্যাস নির্গত হচ্ছে। অসাবধানতাবশত কেউ কেউ জ্বলন্ত সিগারেট ফেলে দেওয়ায় আগুন ধরে যাওয়ার ঘটনাও ঘটছে বলে জানা যায়।

সম্প্রতি ফতুল্লা থানাধীন তল্লায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদে গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে ঘটে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। এরই মধ্যে ঝরে গেছে ৩৪টি তাজা প্রাণ, এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে বেশ কয়েকজন। তার পরেও যেন ঘুম ভাঙ্গছে না তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের।

এ স্থানটিতে ড্রেন এবং মূল সড়কের ২০ ফুট জায়গা জুড়েই বুদবুদ করে বের হচ্ছে গ্যাস। ফতুল্লা থানাধীন শিবু মার্কেটের কুতুব আইল এলাকায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার গেইটের সামনের সড়কে এমন অবস্থা গত এক বছর ধরে।

স্থানীয়রা জানায়, সড়কে হাঁটলে গ্যাসের গন্ধ নাকে লাগে। এখানে বেশ কয়েকটি পয়েন্ট থেকে অনবরত গ্যাস বের হচ্ছে। তাই আতঙ্ক নিয়ে দিন পার করছেন ব্যস্ততম এ এলাকার বাসিন্দারা। তাদের অভিযোগ, তিতাস কর্তৃপক্ষকে অনেকবার বিষয়টি জানানো হলেও ছিদ্র সারাতে তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বৃষ্টির পানি জমে থাকায় সড়কটিতে স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে গ্যাসের লিকেজ ও বুদবুদ। পানি জমে থাকার কারণে প্রতিনিয়ত বের হচ্ছে বুদবুদ। একটু সামনে গিয়ে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে বুদবুদের শব্দও। আর গ্যাসের এ বুদবুদ দেখে, আতঙ্কিত মানুষজন তাড়াহুড়ো করে স্থানটি পার হওয়ার চেষ্টা করছে।

সদর উপজেলা গেইট সংলগ্ন এক ব্যবসায়ী বলেন, প্রায় বছর খানেক যাবৎ এখান দিয়ে গ্যাস বের হচ্ছে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এ সড়ক থেকে কয়েক মিটার দুরত্বে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ। অথচ এ সড়কের সামনেই এমন বুদবুদ বের হলেও তিতাস কর্তৃপক্ষ সহ কোনো সংস্থাই কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা ঘটলেই সকলের টনক নড়ে বলেও জানান তিনি। তাই তিনি বলেন, এখনই কার্যকর ব্যবস্থা না নিলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড নারায়ণগঞ্জের উপ-মহাব্যবস্থাপক, প্রকৌশলী মোঃ মফিজুল ইসলাম বলেন, কেউ তো আগে কখনো অভিযোগ করে নি, তাই বিষয়টি আমার জানা ছিলো না। আমি এখনি আমার টিমকে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করছি যাতে করে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

আজকের দিন-তারিখ

  • মঙ্গলবার (সকাল ১০:০০)
  • ২রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৮ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
  • ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)

বাছাইকৃত সংবাদ

No posts found.